ম্যালওয়্যার দ্বারা সৃষ্ট ফায়ারফক্স এর সমস্যাগুলো সমাধান করুন

ম্যালওয়্যার হল এক ধরনের "ম্যালিশিয়াস সফটওয়্যার"। এই শব্দটি সাধারনত ব্যাবহার করা হয় আপনার কম্পিউটার এ ইন্সটল হওয়া এক ধরনের সফটওয়্যার কে বোঝাতে যেটিকে তৈরী করা হয়েছে এমনভাবে যাতে করে এটি ব্যাবহারকারীকে না জানিয়েই তার সম্মতি ছাড়াই কম্পিউটারে অনুপ্রবেশ করতে পারে এবং সিস্টেম এর বিভিন্ন ক্ষতি করতে পারে। কিছু কিছু সময় দেখা যায়, আপনার কম্পিউটার এ ইন্সটল হওয়া ম্যালওয়ারের কারনে ফায়ারফক্সের বিভিন্ন সমস্যা হয়ে থাকে। আপনি হয়ত তা সম্বন্ধে অবগত নন। এই নিবন্ধটি বর্ণনা করে ম্যালওয়ারের সাধারণ লক্ষণগুলো কী এবং কিভাবে ম্যালওয়্যারকে ইনস্টল হওয়া হতে বিরত রাখা যায় এবং এ থেকে বাঁচার উপায় কি।

আমি কিভাবে বুঝতে পারব যে আমার ফায়ারফক্সের সমস্যাটি ম্যালওয়্যার এর কারনে হচ্ছে?

লক্ষণ হল অসংখ্য এবং ম্যালওয়্যার এর উপর নির্ভর করে কিন্তু আপনার কম্পিউটারে যদি এই লক্ষণগুলোর এক বা একাধিক লক্ষন দেখা যায় তাহলে হয়ত আপনার কম্পিউটারে ম্যালওয়্যার ইনস্টল হয়ে রয়েছে।

আমি ম্যালওয়্যার ইন্সটল হওয়া থেকে কিভাবে রক্ষা পেতে পারি?

শুধুমাত্র কিছু সাধারণ নিয়ম-কানুন মেনে চললেই আপনার কম্পিউটারে ম্যালওয়্যার ইনস্টল হওয়া থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভবঃ

  • আপনার অপারেটিং সিস্টেম এবং অন্যান্য সফটওয়্যারগুলোর হালনাগাদ সংস্করণ রাখুনঃ অনিরাপদ সফটওয়্যারগুলো সাধারণত অন্যান্য সফটওয়্যারের নিরাপত্তার ফাঁকের যথাযথ সুযোগ নিয়ে থাকে। এই নিরাপত্তার ফাঁকগুলো পরবর্তী সংস্করণে সাধারনত সমাধান করা হয়ে থাকে। নিশ্চিত হয়ে নিন যে আপনি যে সকল সফটওয়্যার ও প্লাগইন ব্যাবহার করছেন সেগুলোর প্রত্যেকটির সর্বশেষ সংস্করণ আপনি ব্যাবহার করছেন কিনা। আপনি সকল সফটওয়্যার এর সর্বশেষ সংস্করণ ব্যাবহার করছেন কিনা সেটি জানতে আপনি উইন্ডোজ আপডেট সেন্টার ব্যাবহার করতে পারেন। প্লাগইন গুলোর সর্বশেষ সংস্করণ ব্যাবহার করছেন কিনা তা নিশ্চিত হতে মোজিলার প্লাগইন পরীক্ষার ওয়েবসাইট ব্যাবহার করুন।
  • অজানা সফটওয়্যার ইন্সটল করবেন না: কিছু ওয়েবসাইট আপনাকে নানান সফটওয়্যার ইনস্টল করতে প্রস্তাব করবে। যেরকমঃ আপনার ব্রাউজার কে আরও দ্রুত করতে, আপনাকে ওয়েবে অনুসন্ধান করতে আরও সাহায্য করতে, আপনাকে কিছু টুলবার ইনস্টল করতে ইত্যাদি। কিন্তু এগুলো স্বয়ংক্রিয়ভাবেই ফায়ারফক্সে রয়েছে। এগুলো পেতে আপনাকে আলাদা করে অন্য কোনো সফটওয়্যার ব্যাবহার করার প্রয়োজন নেই। কিছু অযাচিত সফটওয়্যার আবার প্যাকেজ আকারেও এসে থাকে। সাধারনত এই সকল প্রোগ্রামগুলো আপনার ব্রাউজিং এর অভ্যাসের নানা তথ্য সংগ্রহ করে এবং তাদের নির্মাতাতদের কাছে সেই তথ্যগুলো পাঠায়। এভাবে এই সফটওয়্যারগুলো ফায়ারফক্সে হস্তক্ষেপ করে। নিশ্চিত হয়ে নিন যে আপনি মোজিলার অ্যাড-অনের ওয়েবসাইট হতেই একমাত্র অ্যাড-অনস ইন্সটল করছেন এবং আরও নিশ্চিত হয়ে নিন যে আপনি software wizard এ অযাচিত প্রোগ্রামগুলো আনচেক করেছেন।
  • পপ আপ উইন্ডোর মাঝখানে ক্লিক করবেন না:' আপনার সিস্টেমে ম্যালওয়্যার প্রবেশ করানোর জন্য অনেক অনিরাপদ ওয়েবসাইট আপনাকে পপ-আপ উইন্ডো এর মত নানা ছবি দেখাবে অথবা আপনাকে নানা ধরনের অ্যানিমেশন দেখাবে। এই সব ভুয়া পপ-আপ কে সনাক্ত করতে আরও তথ্যের জন্য পপ-আপ ব্লকের সেটিং, ব্যাতিক্রমসমূহ এবং সমস্যাকালীন সমাধান নিবন্ধটি দেখুন।
  • কোনো ভুয়া ফায়ারফক্স চালাবেন না: শুধুমাত্র mozilla.org/firefox হতেই ফায়ারফক্স ডাউনলোড করুন।
    দ্রষ্টব্য: দয়াকরে মোজিলার অপব্যাবহারকারীদের সম্পর্কে রিপোর্টের পেজ ব্যাবহার করে মোজিলার ট্রেডমার্ক সম্পর্কিত কোন ওয়েবসাইটের আপব্যাবহার সম্পর্কে আমাদের রিপোর্ট করুন এবং ইমেইল এর ক্ষেত্রে অপব্যাবহার হলে সেই ইমেইলটি আমাদের মোজিলার অপব্যাবহার সম্পর্কিত ইমেইল ঠিকানায় তা ফরওয়ার্ড করে আমাদেরকে সাহায্য করুন
  • অ্যান্টি-ভাইরাস এবং অ্যান্টি-স্পাইওয়্যার সার্বক্ষনিক নিরাপত্তা চালু করুন এবং আপনার সিস্টেমকে প্রতিনিয়ত স্ক্যান করুন নিশ্চিত হয়ে নিন যে আপনার 'অ্যান্টি-ভাইরাস এবং অ্যান্টি-স্পাইওয়্যার সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা সচল রয়েছে। প্রতি মাসে এক বার অন্তত আপনার কম্পিউটার স্ক্যান করুন

আমি কিভাবে ম্যালওয়্যার হতে পরিত্রাণ পেতে পারি?

ম্যাক ব্যাবহারকারীদের জন্য ম্যালওয়্যার হতে পরিত্রাণ পেতে অ্যাপেল এর সহায়তাকারী মালওয়্যার আক্রমন হতে আপনার ম্যাককে শক্ত করে তুলুন নিবন্ধের মধ্যেই যাবতীয় সকল তথ্য ও উপদেশ রয়েছে। লিনাক্স ব্যাবহারকারীদের জন্য ম্যালওয়্যার হতে পরিত্রাণ পেতে উইকিপেডিয়ার লিনাক্সের ম্যালওয়্যার প্রবন্ধের মধ্যেই যাবতীয় সকল তথ্য ও উপদেশ রয়েছে। যদি আপনার অ্যান্টি-ভাইরাস এবং অ্যান্টি-স্পাইওয়্যার সফটওয়্যার কোন ম্যালওয়্যার সনাক্ত না করে থাকে তাহলে নিচে উল্লেখিত বিনামুল্যের ম্যালওয়্যার অনুসন্ধানের প্রোগ্রামগুলো দ্বারা আপনার সিস্টেম স্ক্যান করুন। সবগুলো প্রোগ্রাম দ্বারা আপনার স্ক্যান করা উচিত কারন প্রত্যেকটি ম্যালওয়্যার আলাদা আলাদা ধরনের ম্যালওয়্যার সনাক্ত করে থাকে এবং স্ক্যানের পূর্বে নিশ্চিত হয়ে নিন যে আপনি প্রত্যেকটিকে হালনাগাদ করেছেন এবং তাদের সর্বশেষ সংস্করণ ব্যাবহার করছেন।

সতর্কতা: অ্যান্টি-ভাইরাস এবং অ্যান্টি-স্পাইওয়্যার সফটওয়্যার হয়ত কিছু কিছু সময় ভুল নির্দেশনা তৈরী করতে পারে। সেজন্য আক্রান্ত ফাইলকে না মুছে তাদেরকে quarantining করে রাখা উচিত।
দ্রষ্টব্য: কিছু কিছু ম্যালওয়্যার শুধুমাত্র উইন্ডোজ সেফ মুডউইন্ডোজ সেফ মুড এই অপসারন/মুছা সম্ভব।


যদি সমস্যাটি সমাধান করা সম্ভব না হয় এবং চলতেই থাকে তাহলে ম্যালওয়্যার অপসারনের জন্য বিশেষায়িত ফোরামে সহাজ্য চান। কিছু ফোরামের ঠিকানা নিচে দেওয়া হলঃ

এই নিবন্ধটি শেয়ার করুনঃ আপনি এই http://mzl.la/MPPnpl লিংকটি ব্যবহার করে সহজেই নিবন্ধটি শেয়ার করতে পারবেন। এটা স্বয়ংক্রিয়ভাবে অপারেটিং সিস্টেম এবং ভাষা অনুযায়ি নির্দেশনা দেখাবে।

এই প্রবন্ধটি কি সহায়তাকারী? দয়া করে অপেক্ষা করুন...

These fine people helped write this article: ashickurnoor, Safwan.rahman. You can help too - find out how.